Peaky Blinders Bangla Subtitle – পিকি ব্লাইন্ডার্স

Peaky Blinders Bangla Subtitle নিয়ে আসলাম আপনাদের জন্য। পিকি ব্লাইন্ডার্স আমার দেখা অন্যতম বেস্ট সিরিজ। এমনিতেও একে টপ সিরিজের একটা ধরা হয়। একদিক থেকে তো অন্য সিরিজগুলোকেও ছাড়িয়ে গেছে, স্টাইলিশ সিরিজ হিসেবে সত্যি পিকি ব্লাইন্ডার্স অনবদ্য।এই সিরিজ আইএমডিবিতে ৮.৮ রেটিং পেয়েছে। এই সিরিজে ৫টি সিজন রয়েছে। এবং এতে মোট এপিসোডের সংখ্যা ৩০ টি।সিরিজটি পরিচালনা করেছেন স্টিবেন নাইট।গল্পের লেখক ছিলেন চিলিয়ান মর্ফি, হেলেন মকরয় এবং পল এন্ডারসন। Peaky Blinders Bangla Subtitle ডাউনলোডের আগে চলুন এর সম্পর্কে আরেকটু জানি।

কাহিনী সংক্ষেপ: বার্মিংহামের এক ফ্যামিলি, শেলবি ফ্যামিলি নামে পরিচিত। যারা সামান্য স্ট্রিট ক্রিমিনাল। স্ট্রিট ক্রিমিনাল থেকে উঠে আসা এবং ধীরে ধীরে উঁচু পদে নিজেদের নিয়ে যাওয়াই মূল গল্প।
শেলবি ফ্যামিলির বড় সন্তান আর্থার শেলবি। এরপর একে একে থমাস শেলবি, জন শেলবি, ফিন এবং বোন আডা শেলবি, আন্ট পলি। জুয়াখেলা, ঘোড়দৌড়ের উপর বাজি এসব নিয়ে কোম্পানি চালায় শেলবি ফ্যামিলি। শেলবিদের দ্বারা ধীরে ধীরে সংগঠিত হতে থাকে পিকি ব্লাইন্ডার্স গ্যাং। একসময় তারা তাদের সীমা বাড়ায়৷ বিস্তৃত করে গ্যাং এর। এইসময় থেকে পিকিরা প্রভাবশালী হতে থাকে। তবে ধীরে ধীরে যেমন শেলবিরা উন্নতির দিকে ধাবিত হয় তেমনি জড়িয়ে পড়তে হয় নানা প্রতিকূল পরিস্থিতিতে। শেলবি লিডার থমাস শেলবি যার বুদ্ধিমত্তার সাথে অন্যান্য শেলবিদের মিলিত চেষ্টায় সেসবের বিরুদ্ধে লড়ে পিকি ব্লাইন্ডার্সরা।

পিকি ব্লাইন্ডার্স মূলত ১৮ শতক থেকে পদচলা শুরু করলেও সিরিজে দেখানো হয় তাদের অগ্রগতি হতে থাকে ১৯২০ থেকে আর মূলত এখান থেকেই সিরিজের শুরু। এবং এই সিরিজের অন্যতম আকর্ষণীয় ব্যাপার হচ্ছে সেট ডিজাইনিং। একেবারে অডিয়েন্সকে যেনো সত্যি ঊনিশ শতকে নিয়ে যায় এ সিরিজ। এতো নিখুঁত! স্টিভেন নাইটকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

পিকি ব্লাইন্ডার্সের মেকিং নিয়ে বোধহয় কারো কোনো কমপ্লেইন থাকার কথা না! এটাকে অসাধারণ বললেও কম হয়। আরেকটা দারুণ ব্যাপার হচ্ছে দারুণ সব সংলাপ। প্রত্যেকটা ক্যারেক্টর দারুণ স্টাইলিশ। এটিচিউট তো একেবারে…
ডিরেকশন অন্য লেভেলের। সিনেমাটোগ্রাফি, ভিজ্যুয়াল ইফেক্ট বা এক্টিং সব সেক্টরে পিকি ব্লাইন্ডার্স অনবদ্য। গল্পের প্রসঙ্গে বললে স্ক্রিপ্ট রাইটাররা হিস্টোরির সাথে কল্পনা মিলিয়ে দারুণ সব কাজ নির্মাণ করেছেন। প্রতিটি সিজনে ৬ টি এপিসোড। প্রথম থেকে শুরু করে মন আটকে থাকবে শেষ এপিসোডের জন্য৷ এবং পিকি ব্লাইন্ডার্সের প্রত্যেকটা সিজনের সবচেয়ে বড় ধামাকাটা পাওয়া যায় শেষ এপিসোডেই। যার ফলে দারুণ অনুভূতির সৃষ্টি তো হয়ই সেই সাথে লম্বা সময় জাবুর কাটা যায়৷ তবে পিকি ব্লাইন্ডার্স অনেকের স্লো লাগতে পারে। ধৈর্য ধরলে অবশ্য প্রত্যেকটা সিজনই তা পুষিয়ে দিবে।


পিকি ব্লাইন্ডার্সের ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক তো বিশ্বব্যাপী ফেমাস৷ পিকি ব্লাইন্ডার্সের থিম সং যেনো যোগ করে আরেক মাত্রা। নিক কেইভের “রেড রাইট হ্যান্ড” বেশ জনপ্রিয়। এর মিউজিক নিয়ে বা সেই সাথে কিছু সিন নিয়ে ইন্টারনেট জগতে যে কতো ক্লিপ হয়েছে তার তো কোনো ইয়ত্তা নেই!


এবার যদি কাস্টের কথা বলি তাহলে পিকি ব্লাইন্ডার্স বোধহয় কাস্টের দিক থেকে কোনো ঘাটতি রাখেনি। কিলিয়ান মর্ফি, এড্রিয়ান ব্রডি, টম হার্ডিসহ তারার মেলা পিকি ব্লাইন্ডার্সে। এবং সবার এফোর্টটাও দেখার মতো! উল্লেখযোগ্য কিছু ক্যারেক্টর-

থমাস শেলবি এ সিরিজের আকর্ষণীয় এক চরিত্র। থমাসের বুদ্ধি,চিন্তাধারা এবং সাহস আর রিস্ক নেওয়ার ক্ষমতাই মূলত পিকি ব্লাইন্ডার্সের অগ্রগতির কারণ। এই ক্যারেক্টরের এটিচিউট দেখার মতো। ওর হাটার স্টাইলটা কনফিডেন্স লেভেলের বহিঃপ্রকাশ হয়ে আছে। কিলিয়ান মর্ফি তো যেনো একেবারে এ ক্যারেক্টরে মিশেই গেছে। তার সাথে টমি শেলবি মিলেমিশে একাকার।

ওয়াল্টার হোয়াইট, মাইকেল স্কোফিল্ড, পাবলো এস্কোবার (রিয়েল লাইফ ক্যারেক্টর), টনি সোপরানোর সাথে থমাস শেলবি, আমার মতে সিরিজ জগতে টপ ফাইভ ক্যারেক্টর!

আর্থার শেলবি হচ্ছে শেলবি ফ্যামিলির বড়জন৷ রাগী, স্বভাবে বন্যতায় ভরপুর। কাজে বেসামাল, চিন্তার ধার ও তেমন ধারেনা। তবে তাকে সামলাতে একজনই জানে- থমাস শেলবি। এরপরেও আর্থার কেনো সিরিজের অন্যতম আকর্ষণীয় চরিত্র?
ওয়েল, আর্থার পুরো শেলবি ফ্যামিলিতেই বিগ ইনফ্লুয়েন্স ফেলে। ওর বন্য স্বভাবই অনেক সময় লিড দিয়ে যায়৷ পিকি ব্লাইন্ডার্স লাভার হলে এ ক্যারেক্টরটা প্রিয় না হয়ে যায়না। বাপরে বাপ, কি তার এক্সপ্রেশন আর কি তার এটিচিউট! পল এন্ডারসন দারুণ করেছেন এ চরিত্রে। এরচেয়ে ভালো করা বোধহয় আর সম্ভব ও না। অনেক প্রশংসিতও হয়েছেন এ চরিত্র প্লে করার জন্য। তার বলা “Fook Linda” এর সাথে তো একমতই সাথে আমি যোগ করলাম-
“Fook Esme!”

জন শেলবি তার পরেরজন৷ যেহেতু একটু ছোট আর সামনের বড় দুইজনই লিড দিচ্ছে তাই তার উপর ফোকাস কম থাকার কথা। কিন্তু না, বরং জন শেলবিকে বলা যায় পাক্কা এক গ্যাংস্টার। ছোট হলে কি হবে নিজের বিবেচনায় চলে। এমনকি কোনো কিছু তার পছন্দ না হলে থমাস শেলবির সাথেও চোখে চোখ রেখে কথা বলতে জানে। খুবই প্রিয় এক ক্যারেক্টর ছিলো সে।

লুকা চ্যাংরেত্তা, ইতালিয়ান গ্যাংস্টার। পিকি ব্লাইন্ডার্সের সবচেয়ে বড় বাঁধা এবং নিঃসন্দেহে সিরিজের বেস্ট ভিলেন। মূলত পারিবারিক প্রতিশোধ এবং বার্মিংহামের জন্য তার পিকিদের সাথে বোঝাপড়া ছিলো। এড্রিয়ান ব্রডি পুরো জমিয়ে ক্ষীর করে তুলেছেন এ চরিত্রকে। এড্রিয়ান ব্রডির এক্টিং নিয়ে সংশয় ছিলোনা কিন্তু ভাবছিলাম এ চরিত্রে সে মানাবেনা। কিন্তু দেখার পর মনে হলো এ চরিত্রে এড্রিয়ান ব্রডির বিকল্পই হয়না।

আন্ট পলি, শেলবি ফ্যামিলির সবচেয়ে বয়স্ক মহিলা হলেও লেডি ক্যারেক্টরে তারচেয়ে স্টাইলিশ কেউ বোধহয় নেই। প্রয়াত এক্ট্রেসের এক্টিং যে কারো ভালো লাগতে বাধ্য। তার এটিচিউট নিঃসন্দেহে পিকি ব্লাইন্ডার্স লাভাররা মিস করবে।

এছাড়াও ইনস্পেকটর ক্যাম্পবেলও পিকিদের জন্য বিরাট বাঁধা হিসেবে কাজ করছে। প্রথমে কনফিউজিং হলেও সে যে কতো বড় ভিলেন তা ধীরে ধীরে প্রকাশ পেতে থাকে। টম হার্ডির প্লে করা আল্ফি সলোমনসের কথা না বললে নয়। ক্যারেক্টরটা আপনাকে হঠাৎ হঠাৎ কনফিউজিং করে দিতে পারে। লেডি শেলবি আর জিপসিরা তো আছেই।


পিকি ব্লাইন্ডার্সের মেকিং আপনাকে মোহিত করবে, স্ক্রিনজুড়ে ঊনিশ শতক যেভাবে চিত্রায়িত হয়েছে মনে হবে জীবন্ত, পিকি ব্লাইন্ডার্সের স্টাইল মন্ত্রমুগ্ধ করবে, পিকি ব্লাইন্ডার্সের মিউজিক যেনো রক্ত গরম করে দিবে এবং শেলবিদের নানা ক্যারেক্টরে আপনাকে ডুবিয়ে নিবে।

চলুন এবার Peaky Blinders Bangla Subtitle ডাউলোড করে নিন।

Peaky Blinders season 1

Peaky Blinders season 2

Peaky Blinders season 3

Peaky Blinders season 4

Peaky Blinders season 5

Leave a Comment